অফিস ধ্বংস করে দেওয়ার পরও চুপ করে থাকবে না; বলে জানান, আল-জাজিরা

আন্তর্জাতিকআন্তর্জাতিক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  

ইসরায়েলিদের বিমান হামলায় আল-জাজিরার গাজায় অবস্থিত কার্যালয় ধ্বংস করে দেওয়ার পর কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা বলেছে, তারা চুপ করে থাকবে না। ইয়াহুদীবাদ সন্ত্রাসী অবৈধ দখলদার ইসরায়েলি হামলায় আল-জাজিরাসহ মার্কিন সংবাদ সংস্থা এপির কার্যালয়ও গুঁড়িয়ে গেছে। ১৫ মে শনিবার ইসরায়েল বাহিনীর বিমান হামলা চালিয়ে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন বোমা ফেলা ১১ তলা বিশিষ্ট এই ভবনটি উড়িয়ে দেয়।

১১ তলা বিশিষ্ট আল-জালা টাওয়ার ভেঙে পড়ার পর আলজাজিরার জেরুজালেম ব্যুরোর প্রধান ওয়ালিদ আল-ওমারি বলেছেন, এটা স্পষ্ট যে যারা যুদ্ধ করছে তারা গাজায় শুধু ধ্বংস আর মৃত্যুই বাড়িয়ে চলছে না, তারা গণমাধ্যমগুলোকেও চুপ করিয়ে দিতে চায় যারা এগুলো প্রত্যক্ষ করছে। তথ্য সংগ্রহ করছে ও সত্যের প্রতিবেদন করছে যে গাজায় ঠিক কী ঘটছে, কিন্তু এটি অসম্ভব। ইসরায়েলি সেনারা গাজা উপত্যকায় যেসব অপরাধ নিয়মিত করে চলছে এটি তারই অংশ।

আল-জাজিরা একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে যেখানে দেখা যাচ্ছে ইসরায়েলি বোমার আঘাতে ভবনটি মাটিতে ভেঙে পড়ছে। এর ফলে ছাতার মতো করে প্রচুর ধুলো আর ধ্বংসাবশেষ ছড়িয়ে পড়ে।

আল-জাজিরা লাইভ

জালা টাওয়ারের মালিক জাওয়াদ মেহদি বলেন, একজন ১১ তলা বিশিষ্ট আল-জালা টাওয়ার ভেঙে পড়ার পর ইসরায়েলি গোয়েন্দা তাকে সতর্ক করে দিয়েছিলেন যে ভবনটি খালি করতে তার মাত্র এক ঘণ্টা সময় রয়েছে।

গাজায় আল-জাজিরার প্রতিবেদক সাফওয়াত আল-কাহলৌত ভবনটি গুঁড়িয়ে যাওয়ার পর হতাশা প্রকাশ করে টুইট করেন, আমি এখানে ১১ বছর ধরে কাজ করছি। এই ভবন থেকে আমি অনেক ঘটনার খবর দিয়েছি এখন আর ভবনটি নাই, দুই সেকেন্ডের মধ্যেই ভবনটি মাটির সঙ্গে মিশে যায়।

১১ তলা বিশিষ্ট আল-জালা টাওয়ার ভেঙে পড়ার পর ইয়াহুদীবাদ সন্ত্রাসী অবৈধ দখলদার ইসরায়েলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়। তাদের ফাইটার বিমান একটি বহুতল ভবনের ওপর হামলা চালিয়েছে যেখানে হামাসের সামরিক ইন্টিলিজেন্স বিভাগের সামরিক সরঞ্জাম রাখা ছিল বলে দাবি করে তারা। এই ভবনে বেসামরিক গণমাধ্যমের কার্যালয় ছিল, যার ভেতর হামাসের কর্মীরা লুকিয়ে থাকতেন এবং মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করতেন বলে জানান ইসরায়েল বাহিনী।

আল-জাজিরার সাংবাদিকরা বলছেন, ভবন ধ্বংস সত্ত্বেও তারা এক মুহূর্তের জন্য থেমে যাবেন না। প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সময় সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধের এটি সবশেষ চেষ্টা ইয়াহুদীবাদ সন্ত্রাসী অবৈধ দখলদার ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর। এ হামলার ঘটনা সরাসরি সম্প্রচার করেছে আল-জাজিরা।

আপনার মতামত লিখুন :