করোনায় মিরসরাইয়ে ফ্রি অক্সিজেন সেবা দিচ্ছেন দুই জনপ্রতিনিধি খোকন ও নয়ন

মিরসরাই প্রতিনিধিমিরসরাই প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:৪৮ পিএম, ১৩ জুলাই ২০২১

  করোনার কঠিন সময়ে করোনা রোগীদের সেবা দেওয়ার মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে এলেন মিরসরাই উপজেলার দ্ইু জন প্রতিনিধি। তারা হলেন বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকন ও ১ নম্বর করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন।

এই দুই জনপ্রতিনিধি ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিনামূল্যে জরুরী অক্সিজেন সেবা চালু করেছেন। তাদের এই অনন্য উদ্যোগ ইতিমধ্যে উপজেলাজুড়ে প্রশংসিত হয়েছে। মিরসরাই উপজেলার প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা বারইয়ারহাট। এই পৌরসভায় করোনায় আক্রান্তদের জন্য গত ৫ জুলাই থেকে পৌর মেয়র রেজাউল করিম খোকনের ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিনামূল্যে জরুরী অক্সিজেন সেবা চালু করা হয়। এবিষয়ে তিনি বলেন, করোনা মহামারিতে অনেকেই আছেন সময়মতো অক্সিজেন না পেয়ে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ছেন এবং মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন। তাই বারইয়ারহাট পৌরসভায় করোনায় আক্রান্তদের কথা বিবেচনা করে বিনামূল্যে জরুরী অক্সিজেন সেবা চালু করেছি। প্রাথমিকভাবে ৩ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে এই কার্য্যক্রম শুরু করা হয়েছে। চাহিদা বাড়লে আরও অক্সিজেন সিলিন্ডার বাড়ানো হবে। দিনরাত ২৪ ঘণ্টা অক্সিজেন সেবা পাবেন পৌরবাসী, সেবা নিশ্চিত করার জন্য ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় জনবলও নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়া ইতিমধ্যে বারইয়ারহাট পৌরবাজারের ব্যবসায়ী মোজাম্মেল হক ২ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার আমাদেরকে প্রদান করেছে, বর্তমানে ৫ টি অক্সিজেন দিয়ে সেবা কার্য্যক্রম চালানো হচ্ছে। মেয়র রেজাউল করিম খোকনের বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবার অন্যতম তত্বাবধায়ক তানভীর আহম্মেদ বলেন, গত ৫ জুলাই থেকে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা চালু হওয়ার পর থেকে উদ্যোগটি ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে। ইতিমধ্যে ১১ জুলাই পর্যন্ত ৭ জনকে এই অক্সিজেন সেবা প্রদান করা হয়েছে। আমরা প্রথমে শুধু বারইয়ারহাট পৌরসভার নাগরিকদের বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা দেওয়ার মানসে এই উদ্যোগটি চালু করলেও পৌরসভা এলাকার বাইরের জনগণকেও এখন সেবা দিচ্ছি। এছাড়া পৌরসভার অধীনে থাকা হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেন সংকট পড়লে সেখানেও অক্সিজেন সরবরাহ করছি।

মেয়ররেজাউল করিম খোকনের বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবার উদ্যোগকে অনন্য উদ্যোগ হিসেবে দাবী করেন বারইয়ারহাট পৌরসভার এসবি ফ্যাশানের পরিচালক মোজাম্মেল হক। তিনি মেয়রের এই উদ্যোগকে আরো সমৃদ্ধ করতে ব্যক্তিগত উদ্যোগে ২ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান করেন। তিনি জানান, করোনার এই সময়ে সকল মানবিক কাজে সবাইকে এগিয়ে আসা উচিত। মেয়রের এই উদ্যোগ চালু হওয়ার পর থেকে দারুনভাবে প্রশংসিত হয়েছে। ব্যক্তিগতভাবে আমি নিজেও খুশি হয়েছি, তাই মেয়রের এই উদ্যোগকে আরো বৃহত ও সমৃদ্ধ করতে ২ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করেছি। অপরদিকে করেরহাট ইউনিয়নের করোনায় আক্রান্তদের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদানের লক্ষ্যে গত ১৩ এপ্রিল থেকে ৪ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়নের ব্যাক্তিগত উদ্যোগে করেরহাট ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আইসোলেশন সেন্টার ও অক্সিজেন সেবা চালু করা হয়েছে। এছাড়া ৪ জন চিকিৎসকের সমন্বয়ে গঠন করেছেন টেলি মেডিসিন সেবা। এতে করে ইউনিয়নের যেকোন বাসিন্দা রাতদিন মুঠোফোনে চিকিৎসকদের সাথে কথা বলে করোনার প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। টেলি মেডিসিন সেবা প্রদানকারী চিকিৎসকরা হলো ডা. বি.কে চৌধুরী বিপুল, ডা. জাহেদুল ইসলাম, ডা. সানজিদা মমতাজ তামান্না, ডা. জয় বর্ধন। চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়নের ব্যাক্তিগত উদ্যোগে গড়া আইসোলেশন সেন্টার, অক্সিজেন ও টেলি মেডিসিন সেবা সম্পর্কে ডা. বি.কে চৌধুরী বিপুল জানান, ইতিমধ্যে করেরহাট ইউনিয়নের অসংখ্য বাসিন্দা অক্সিজেন ও টেলি মেডিসিন সেবা নিয়েছেন। চেয়ারম্যানের এই উদ্যোগের সাথে থাকতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।

করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন জানান, সাবেক গৃহায়নও গণপূর্ত মন্ত্রী, মিরসরাইয়ের সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপির নির্দেশে এবং তার পুত্র আইটি বিশেষজ্ঞ মাহবুব রহমান রুহেলের সার্বিক পরামর্শে করোনা মোকাবেলায় ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য আইসোলেশন সেন্টার, অক্সিজেন সেবা ও টেলি মেডিসিন সেবা চালু করা হয়েছে। প্রাথমিক পর্যায়ে ৪ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে এই সেবা চালু করলেও চাহিদা বাড়লে আরো অক্সিজেন সিলিন্ডার সংযোজন করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :