নোয়াখালীতে স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি, যুবক আটক

নোয়াখালীর চাটখিলে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৫) শ্লীলতাহানির অভিযোগে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত মো.লিটন ওরফে চান মিয়া (৩৫) উপজেলার রামনারায়নপুর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামের দেওয়ান বাড়ির আবু ছিদ্দিকের ছেলে। রোববার (১৮ জুলাই) সকালে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

এর আগে, গতকাল শনিবার রাত ১২টার দিকে চাটখিল খিলপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের একদল পুলিশ উপজেলার কালিকাপুর গ্রাম থেকে তাকে আটক করে। গত শুক্রবার (১৬ জুলাই) রাত ১১টার দিকে উপজেলার রামনারায়নপুর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

থানা পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী স্কুল ছাত্রী এতিম। নানার বাড়িতে থেকে লেখা পড়া করছে। তাকে বিভিন্ন সময় একই বাড়ির তিন সন্তানের জনক চান মিয়া কু-প্রস্তাব দিয়ে উক্তত্য করত। এতে সে রাজি না হওয়ায় গত শুক্রবার রাত ১১টার দিকে বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘরের বাহিরে গেলে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা চান মিয়া তাকে জাপটে ধরে শ্লীলতাহানি করে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এসময় মেয়েটির চিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে এলে চান মিয়া পালিয়ে যায়। পরে মেয়েটি বিষয়টি সবাইকে অবহিত করে। এ ঘটনায় শনিবার রাত ৮টার দিকে ভিকটিমের নানী বাদী হয়ে নারীও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। তাৎক্ষণিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত যুবককে আটক করে।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় ভিকটিমের নানী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চাটখিল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এ মামলার প্রধান আসামি চান মিয়াকে গ্রেফতার করে। রোববার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে নোয়াখালী জেলা কারাগারে পাঠানো হবে।

আপনার মতামত লিখুন :