সমাজ ও রাষ্ট্রের সকল ক্ষেত্রে রাসূল (সা:) এর আদর্শ প্রতিষ্ঠা ছাড়া শান্তি আসবে না: পীর সাহেব চরমোনাই

শাহাদাত হোসাইনশাহাদাত হোসাইন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:৫১ পিএম, ২২ নভেম্বর ২০২১


ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, ইসলাম শান্তি ও কল্যাণের ধর্ম, মানবতার ধর্ম। ইসলামের নামে বিশৃঙ্খলা করার সুযোগ এখানে নেই। দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্যে চক্রান্ত চলছে। পুজামণ্ডপে-মন্দিরে হামলা, হিন্দুদের বাড়ী-ঘরে হামলায় ইসলামপন্থিরা জড়িত তা প্রমাণ করতে পারেনি।

তারপরও সেইসূত্র ধরে ত্রিপুরা রাজ্যে মুসলমানদের বাড়ী-ঘর, দোকানপাঠ ও মসজিদে হামলা এবং মুসলমানদের উপর জুলুম নির্যাতন করা হচ্ছে। ওই মহলটি দেশে ইসলামী রাজনীতি বন্ধের চক্রান্ত করছে। রাসূল সা.-এর আগমনের পূর্বে বিশ্বব্যাপী এক মহাপরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। কাজেই অশান্তি দূর করে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্যে নববী আদর্শ প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

আজ বিকেলে পটুয়াখালী সদর হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত বিশাল ইসলামী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সম্মেলনে লক্ষ জনতার ঢল নামে। প্রশাসন অনুমতি নিয়ে টালবাহানা করে শেষ মুহুর্তে সম্মেলনের অনুমতি দেয়। সম্মেলনে পটুয়াখালী শহরের ওলামায়ে কেরাম এবং মসজিদের ইমামগণ উপস্থিত ছিলেন।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম আজ অবহেলিত। অথচ তারাই মানবাধিকারের কথা বলেন। বিশ্বের সর্বত্র মানবাধিকার চরমভাবে লঙ্ঘিত। আজ যারা মানবাধিকারের কথা বলে, তারাই মানবাধিকার বেশি লঙ্ঘন করেন। বিশ্বের দেশে দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে।

কাজেই মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার মূর্ত প্রতীক মুহাম্মদ সা.-এর আদর্শ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই সত্যিকারের মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা সম্ভব। তিনি বলেন, সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বিশ্বে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন রাসূল সা.। মানুষের সকল প্রয়োজন, ব্যক্তি, সমাজ, রাষ্ট্র এবং আন্তর্জাতিক সকল ক্ষেত্রে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করে গেছেন।

ইসলামে রাজনীতি আছে, সে রাজনীতির প্রবক্তা মহানবী সা.। তিনি রাজনীতি করে সমাজ, রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করে দেখিয়ে গেছেন। কাজেই ধর্মে রাজনীতি নেই বলে যারা শ্লোগান দেয়, তারা ইসলাম মানেনা। ইসলামে রাজনীতি, সমাজনীতি, সমরনীতি, শিক্ষানীতি, আন্তর্জাতিক রীতি সবগুলোই রাসূল সা. শিখিয়ে গেছেন। যে ধর্ম এগুলোকে স্বীকার করে না, সেই ধর্ম আমরা মানিনা।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন আমরা মদীনার সনদে রাষ্ট্র চালাবো। কিন্তু রহস্যজনক কারণে তিনি তা ভুলে গেছেন। মদিনা সনদে বিচার ফায়সালা এবং আইন ছিল আল্লাহ এবং আল্লাহর রাসূলের। মানুষের মনগড়া আইন মদিনা সনদ স্বীকৃতি দেয় না। পীর সাহেব চরমোনাই মানুষের নাগরিক ও ভোটাধিকার সহ সকল অধিকার ফিরে পেতে হলে ইসলামের সুশীতল ছায়াতলে ফিরে আসতে হবে।

আপনার মতামত লিখুন :