সরকারের পতনের বছর এটি; প্লেনের চাকা ধরে পালানোর সুযোগ পাবেন না: নুর

অনলাইন ডেস্কঅনলাইন ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:২৪ পিএম, ০৭ জানুয়ারি ২০২২


নির্বাচনী সহিংসতা বন্ধের দাবিতে গণঅধিকার পরিষদের ০৭ জানুয়ারি শুক্রবার বিকাল ৩:৩০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে ডাকসুর সাবেক ভিপি গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর বলেন, সাম্প্রতিক নির্বাচনে যে সহিংসতা ঘটছে তার একটা স্বাধীন তদন্ত হতে হবে। যেখানে যারা দায়ী তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে হবে।শুধু মাফিয়াদের ক্ষমতার খায়েশের জন্য আমরা এতগুলো মানুষের মৃত্যুকে মানতে পারি না। ভারতের পৃষ্ঠপোষকতায় ২০১৪ সালে এই সরকার বিরোধীদল বিহীন নির্বাচন করেও তথাকথিত জঙ্গিবাদ, মৌলবাদের কথা বলে পশ্চিমাদের সমর্থন নিয়ে ক্ষমতায় থেকেছিলো। পশ্চিমারাও এখন তাদের থেকে সরে যাচ্ছে।কারণ তারা বুঝতে পারছে এই সরকারই জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক, এরাই সবচেয়ে বড় সাম্প্রদায়িক।

এ বছরই এ সরকারের বিদায় ঘন্টা বাজবে। তাই আওয়ামীলীগ,ছাত্রলীগ, যুবলীগের ভাইদের বলবো জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়ে জনতার কাতারে এসে দাঁড়ান। সরকারকে বলবো, চিঠি লিখে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা যাবে না।সামনে আরে বিপদ আসবে। একটা অবাধ,সুষ্ঠু নির্বাচন দিন,গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনুন আপনারাও সেইভ, দেশও ভালো থাকবে ‘।

প্রশাসনের উদ্দেশ্য নুর বলেন, মাফিয়াদের দায় নিয়ে আপনারা নিজেদের বিপদ ডেকে আইনেন না, জনগণের পাশে থাকুন।

মানববন্ধনে গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়াসহ গণ অধিকার পরিষদের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম সদস্য সচিব সাইফুল্লাহ হায়দার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম সদস্য সচিব আতাউল্লাহ, যুগ্ম আহবায়ক সোহরাব হোসেন, শাকিল উজ্জামান, সাদ্দাম হোসাইন, সহকারী আহবায়ক তামান্না ফেরদৌস শিখা, ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা,সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আদিব, যুব অধিকার পরিষদের সভাপতি মনজুর মোর্শেদ, সাধারণ সম্পাদক নাদিম হাসান, শ্রমিক অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হোসেল রানা সম্পদ প্রমূখ।

আপনার মতামত লিখুন :